মশার ঔষধ লেবু-লবঙ্গ! জেনেনিন কীভাবে ব্যবহার করবেন

মশার ঔষধ লেবু-লবঙ্গ – মশার যন্ত্রণা থেকে না বাঁচতে পারলে মুখোমুখি হতে হবে চিকুনগুনিয়া, ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু, ফাইলেরিয়া, পীত জ্বর, জিকা ভাইরাস প্রভৃতি মারাত্মক রোগের। এ জন্যে অনেকেই চিন্তিত মশা তাড়ানোর জন্যে। মশা তাড়ানোর জন্য এখন বাজারে বিভিন্ন মশার কয়েল বা ইলেকট্রিক যন্ত্রপাতি পাওয়া গেলেও সেগুলো মানব দেহের জন্য কতোখানি স্বাস্থ্যকর সেটা বিবেচানার বিষয়। তাছাড়া কয়েলের ধোঁয়া বা কয়েল বাড়িতে ছোট বাচ্চা থাকলে তাদের জন্য অনেক বিপদের আশঙ্কা থাকে।

কিছু বিবেচনা করলে প্রাকৃতিক উপায়ে মশা তাড়াতে পারলে সেটা অনেক বেশি ভালো। প্রাকৃতিকভাবে মশা তাড়ানোর জন্য অনেক উপায় থাকলেও শুধু একটি উপায় ব্যবহার করেই আপনি মশার য্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। আর সেটা হচ্ছে লেবু ও লবঙ্গের ব্যবহার। আসুন তাহলে জেনে নেই মশা তাড়াতে কীভাবে ব্যবহার করবেন লেবু ও লবঙ্গ।

লেবু ও লবঙ্গের ব্যবহার: লেবু মাঝখান থেকে কেটে দুই টুকরা করে নিন। এবার লেবুর ভেতরের অংশে অনেকগুলো লবঙ্গ গেঁথে দিন। লেবুর মধ্যে লবঙ্গ দেয়ার সময় খেয়াল রাখবেন যেন লবঙ্গের ডাট পুরোটা লেবুর মধ্যে ঢুকানো হয়। শুধুমাত্র লবঙ্গের মাথার দিকের (ফুলের) অংশ বাইরে থাকবে।

মশার ঔষধ লেবু-লবঙ্গ! জেনেনিন কীভাবে ব্যবহার করবেন

এরপর লেবুর টুকরাগুলো একটি প্লেটে রেখে করে ঘরের কোণায়, জানালা বা দরজার কোণায় রেখে দিন। ব্যস, এতে বেশ কয়েকদিন মশার উপদ্রব থেকে মুক্ত থাকতে পারবেন। এই পদ্ধতিতে ঘরের মশা একেবারেই দূর হয়ে যাবে।

টিপস: আপনি চাইলে লেবুতে লবঙ্গ গেঁথে সুতায় বেঁধে জানালার গ্রিলেও রাখতে পারেন। এতে করেও মশা ঘরে ঢুকবে না।

খেয়াল রাখুন লেবু পচে গেলে বা লেবুতে ‘ফুড ফ্লাই’ আসা শুরু করলে সেই লেবু ফেলে দিয়ে নতুন করে আবার লেবু লবঙ্গ রেডি করে মশা তাড়ানোর ব্যবস্থা করুন।

মশার ঔষধ লেবু-লবঙ্গ

একই রকম পোস্ট
Comments
লোড হচ্ছে...