খেলাধুলা

মুস্তাফিজ ভেলকির পরেও হার!

মুস্তাফিজ ভেলকির -দুই ওভারে জেতার জন্য হায়দরাবাদের দরকার ১২ রান। রোহিত শর্মা বল তুলে দেন কাটার মাষ্টার মুস্তাফিজের হাতে। নিরাশ করেননি মুস্তাফিজ। প্রথম বলে একটি সিঙ্গেল দিলেও পরের ৫টি বল ডট দেন, তুলে নেন মূল্যবান ২টি উইকেট। শেষ ওভারে জয়ের জন্য হায়দরাবাদের দরকার ১১ রান। বোলিংয়ে আসেন বেন কাটিং কিন্তু তিনি তো আর মোস্তাফিজ না। তাই পারলেন ও না।

শেষ পর্যন্ত ১ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছারে সাকিবের সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। ব্যাক টু ব্যাক দুই ম্যাচ হেরে খানিকটা চাপে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। মুস্তাফিজ ৪ ওভার বোলিং করে ২৪ রান দিয়ে তুলে নেন ৩টি উইকেট।

রাজীব গান্ধী স্টেডিয়াম টস জিতে ফিল্ডিং করে সাকিবের দল হায়দরাবাদ। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভার খেলে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৭ রান করে মোস্তাফিজের মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

ব্যাট করতে নেমে শুরাটা খারাপ হয় মুম্বাইয়ের। পাওয়ার প্লে’র ছয় ওভারেই তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পরে মোস্তাফিজের মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। সপ্তম ওভারে বল হাতে নেন সাকিব আল হাসান। প্রথম ওভারে দেন মাত্র এক রান কিন্তু পরের ওভারেই খানিক গোলমেলে বোলিং করে ফেলেন তিনি।

নিজের দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলটি করেন ওয়াইড, পরের দুই বলে আরও দুইটি ডাবলস নেন ক্রুনাল পান্ডিয়া এবং সুর্যকুমার যাদব। ওভারের তৃতীয় এবং চতুর্থ বলে আরও এক ধাপ এগিয়ে চার মেরে বসেন ক্রুনাল। পরপর দুটি বাউন্ডারি হজম করা সম্ভব ছিল না সাকিবের পক্ষে।

ওভারের পরের বলেই সাকিব নিয়ে নেন প্রতিশোধ। তার অফ স্ট্যাম্পের বাইরে থেকে ভেতরে ঢোকা বল অনসাইডে খেলতে গেলে লিডিং এজ হয় ক্রুনালের। শর্ট কভারে দাঁড়িয়ে সহজ ক্যাচ লুফে নেন হায়দরাবাদ অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। জোড়া চারের কারণেই হয়তো উইকেটটি পেয়ে প্রবল আক্রোশে ফেটে পড়েন সাকিব। করেন গর্জনমূখর উদযাপন। ৪ ওভার করে ১ উইকেট নিয়ে ৩৪ রান খরচ করেন সাকিব। এরপর কিরন পোলার্ড ২৩ বলে ২৮ রান করে ফিরে গেলে কেউই দশের কোঠা রান নিতে পারেনি।

উল্লেখ্য, ব্যাটিংয়ে সাকিব আল হাসান ১২ বলে ১২ রান করে আউট হয়ে যান।