আন্তর্জাতিকচিত্র বিচিত্র

যে দেশে ইফতারের দুই ঘণ্টা পরই সেহরি খেতে হয়! রোজা রাখতে হয় ২২ ঘন্টা

রোজা রাখতে হয় ২২ ঘন্টা – বাংলাদেশে ইফতারের ৮ ঘন্টা পর সেহরি খেতে হচ্ছে। আবার কোন কোন সময় ইফতারের ১২ ঘন্টা পরে সেহরি খেতে হয়। কিন্তু আপনি কি জানেন বিশ্বের কোনো কোনো দেশে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের ইফতারের দুইঘণ্টা পরেই সেহরি খেতে হয়। অর্থাৎ তাদের জন্য রোজা ২২ ঘণ্টার।চলুন দেখে নেয়া যাক, বিশ্বের কোন দেশগুলোতে মুসলমানদের সবচেয়ে লম্বা সময়ের রোজা রাখতে হয়।

আইসল্যান্ড: এই দেশে রোজা ২২ ঘণ্টা। এই দেশে মাত্র সাড়ে ৭শ মুসলমানের বসবাস করেন। এই দেশটিতে রাত ২ টায় আর ইফতার পরের দিন রাত ১২ টায়। মানে ইফতারের ২ ঘন্টা পরেই তাদের সেরি খেতে হয়।

সুইডেন: এই দেশে ৫ লাখ মুসলমান বসবাস করেন। ইফতারের মাত্র চার ঘণ্টা পরই সেহরি খেতে হয় এ দেশের মুসলমানদের। মানে এখানে তাদের ২০ ঘন্টা রোজা রাখতে হয়।আলাস্কা: যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কায় ৩ হাজার মুসলমানের বসবাস। – এখানে রোজা রাখতে হচ্ছে ১৯ ঘণ্টা ৪৫ মিনিট।

জার্মানি: এ বছর জার্মানিতে সব ধর্মপ্রাণ মুসলমানকে সেহরি খেতে হচ্ছে রাত সাড়ে তিনটায় আর ইফতার রাত দশটায়। মানে ১৯ ঘণ্টা রোজা রাখতে হচ্ছে।

ইংল্যান্ড: ইংল্যান্ডে এখন প্রায় ২৭ লাখ মুসলমান রয়েছেন। এখানেসেহরি থেকে ইফতারের সময়ের পার্থক্য ১৮ ঘণ্টা ৫৫ মিনিট।

কানাডা: এদেশে প্রায় ১০ লাখ মুসলমান রয়েছেন। এবার কোনো কোনো দিন সেহরির প্রায় ১৮ ঘণ্টা পর ইফতারি খেতে হচ্ছে তাদের।

তুরস্ক: মুসলিমপ্রধান দেশ তুরস্কেও গরমকালে রোজা রাখতে হয় খুব কষ্ট করে। এবার সেহরির প্রায় সাড়ে ১৭ ঘণ্টা পর ইফতার করতে হচ্ছে এখানকার মুসলমানদের।