চিত্র বিচিত্র

স্ট্যাচু অফ লিবার্টির চমৎকার কিছু অজানা তথ্য

স্ট্যাচু অফ লিবার্টির- স্ট্যাচু অফ দ্য লিবার্টি পৃথিবীর সবচেয়ে বিখ্যাত মাইলফলক গুলোর মধ্যে একটি এবং তামার এই বিশাল মূর্তিটি ১৮৮৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি ফ্রান্সের বন্ধুত্বের নিদর্শন হিসেবে উৎসর্গ করা হয়েছিল। এটি প্রায় ১৩২ বছরের পুরানো কিন্তু লেডি লিবার্টিকে দেখতে এখনো বেশ চমৎকার ।

আজকে আমরা পরিচিত এই স্ট্যাচু  অফ দ্য লিবার্টির  চমৎকার কিছু অজানা তথ্য  আপনাদের সাথে  শেয়ার করছি।

তার আসল নাম

এই স্ট্যাচুটির আসল নাম হচ্ছে লিবার্টি এনলাইটেনিং দ্য ওয়ার্ল্ড, স্ট্যাচু অফ লিবার্টি হচ্ছে তার ডাকনাম।

 লাল থেকে সবুজ

স্ট্যাচু অফ লিবার্টির চমৎকার কিছু অজানা তথ্য

© Daily Mail

এই স্ট্যাচুটি তামার তৈরী এবং উজ্জ্বল লালচে-বাদামী রঙের ছিল(আমেরিকার এক  টাকার কয়েন মত)। শুনে অবাক হবেন, পরবর্তী দুই দশক ধরে স্ট্যাচুটির  রং হালকা সবুজ-নীল রঙে পরিবর্তিত হয়েছে।

সংখ্যায় লেডি লিবার্টি

পাদভূমি থেকে মশাল পর্যন্ত স্ট্যাচুটি ৯৩মি. উঁচু এবং ওজন ২২৫ টন। যখন এটি  ১৮৮৬ সালে প্রতিস্থাপন করা হয়, এটি পৃথিবীর সবচেয়ে উঁচু লৌহ কাঠামো ছিল।  লেডি লিবার্টির জুতার মাপ ৮৭৯ এবং কোমরের মাপ ১১মি.(৩৫ ফুট)। আপনাকে তার মাথার মুকুটের ২৫টি জানালা দেখতে হলে ৩৭৭ সিঁড়ি উঠতে হবে। এর সাতটি স্পাইক সাতটি মহাসাগর এবং সাতটি মহাদেশকে উপস্থাপন করে।

মা দিবসের উপহার

স্ট্যাচু অফ লিবার্টির চমৎকার কিছু অজানা তথ্য

© Business Insider

ফ্রান্সের এক ভাস্কর আগস্টে বারথলদি স্ট্যাচু অফ লিবার্টির নকশা করেছেন। তিনি তার মা শার্লটের চেহারা অনুসারে এটির নকশা করেছেন এবং মূলত আজীবনের জন্য বছরের সেরা পুত্রের পুরষ্কারটি অর্জন করে নিয়েছেন।

আটলান্টিক পাড়ি দেওয়া একটি উপহার

এই স্ট্যাচুটি ফ্রান্স আমেরিকাকে উপহার দিয়েছিলো এবং এটি আমেরিকান বিপ্লবের সময় দুই দেশের বন্ধুত্বের স্মৃতিচিহ্ন বহন করে। এটি শুধুমাত্র স্বাধীনতার প্রতীক নয়, এটি ন্যায়বিচার এবং গণতন্ত্রের প্রতীক এবং ইউনেস্কোর একটি বিশ্ব ঐতিহ্য।

আমেরিকা যাত্রা

স্ট্যাচু অফ লিবার্টির চমৎকার কিছু অজানা তথ্য

© The Babylon Bee

১৮৮৪ সালের ৪ জুলাই ফ্রান্স স্ট্যাচুটি সম্পন্ন করে ফ্রান্সে থাকা আমেরিকান অ্যাম্বাসেডরকে উপহার দেয়। ৩০০টি খন্ডে বিভাজিত, ২১৪ খন্ডে প্যাকেট হওয়ার আগ পর্যন্ত এটি সেখানেই ছিল এবং ১৮৮৫ সালে এটি আমেরিকায় জাহাজে করে পাঠানো হয়  যেখানে এটিকে পুনরায় একত্রীকরণ করা হয়েছিলো। আটলান্টিক মহাসাগর পার হতে পরিকল্পনার এক সপ্তাহ বেশি সময় লেগেছিল এবং এক টন আয়তনের মূর্তি বহনকারী একটি জাহাজ ঝড়ে প্রায় ডুবে যাচ্ছিলো।

 আলোকিত হোক

১৮৮৬ এবং ১৯০৬ সালের মধ্যে স্ট্যাচু অফ লিবার্টি একটি বাতিঘর হিসেবে কাজ করেছে। সুর্যাস্তের পর জাহাজকে দিক নির্দেশনা করার জন্য পর্যাপ্ত আলো ছিল না, তাই ১৬ বছর পর লিবার্টি বাতিঘরটি বন্ধ করে দেয়া হয়।

লেডির ট্যাবলেট

স্ট্যাচু অফ লিবার্টির চমৎকার কিছু অজানা তথ্য

© Keep Calm And Wander

লেডি লিবার্টির হাতে রাখা তামার ট্যাবলেট- একটি পুরানো স্কুলের আইপ্যাডের মতো। আপনি এর উপর JULY IV MDCCLXXVI (৪ জুলাই, ১৭৭৬)লেখা দেখতে পাবেন, এটি আমেরিকার স্বাধীনতা  ঘোষণার তারিখ।

মশাল

স্ট্যাচু অফ লিবার্টির চমৎকার কিছু অজানা তথ্য

© dw.com

মশালটি ১৯১৬ সাল পর্যন্ত পর্যটকদের জন্য খোলা ছিল। যখন ব্ল্যাক টম বিস্ফোরণে লেডি লিবার্টির প্রান্ত এবং মশাল ক্ষতিগ্রস্ত হয় তখন এটি পর্যটকদের জন্য বন্ধ করে দেয়া হয়। ১৯৮৬ সালে মশালটি সরিয়ে নতুন একটি উজ্জ্বল মশাল প্রতিস্থাপন করা হয়েছে- বর্তমান শিখাটি ২৪ ক্যারেট সোনার পাতা দিয়ে আবৃত ।

 স্বাধীনতার দিকে একটি পদক্ষেপ

স্ট্যাচু অফ লিবার্টির চমৎকার কিছু অজানা তথ্য

© matome.naver.jp

আপনি যদি লেডি লিবার্টির তামার পোশাকের দিকে ভালোভাবে তাকান তাহলে আপনি দেখতে পাবেন তার ডান পা উপরে তোলা এবং তিনি ভাঙ্গা শিকলের মধ্যে দাঁড়িয়ে আছেন, যা অত্যাচার এবং নিপীড়ন থেকে বেরিয়ে আসার একটি প্রতীক।

বজ্রপাতের আঘাত

স্ট্যাচু অফ লিবার্টির চমৎকার কিছু অজানা তথ্য

© ohfact.com

এটা বিশ্বাস করে যে স্ট্যাচুটিতে প্রতি বছর ৬০০ ভোল্টের বজ্রপাত আঘাত হানে। এটিই একমাত্র প্রাকৃতিক দুর্যোগ নয় যা তাকে মোকাবেলা করতে হয় যদি ঘন্টায় ৫০ মাইল বেগে ঝড় আসে তাহলে সে প্রায় তিন ইঞ্চি পরিমাণ দুলতে থাকে এবং মশালটি ছয় ইঞ্চি পরিমাণ দুলে।

তথ্য সংগ্রহঃ EF (Education First)

আপনার মতামত