প্রযুক্তি

হোয়াটসঅ্যাপের গোপন সাত ফিচার

হোয়াটসঅ্যাপের গোপন – স্মার্টফোনে কথা বলা ও বার্তা আদান-প্রদানের জনপ্রিয় একটি মাধ্যম হলো হোয়াটসঅ্যাপ। স্মার্টফোন আছে অথচ হোয়াটস্যাপ ব্যবহার করেননি এমন মানুষ দুনিয়ায় খুঁজে পাওয়া কঠিন হবে। হোয়াটসঅ্যাপের অন্যতম বৈশিষ্ট হলো এটি এমন অন্যান্য অ্যাপের চেয়ে তুলনামূলক বেশি গোপনীয়তা রক্ষা করে। তবে এই হোয়াটসঅ্যাপের অনেক ফিচার আছে যা জীবনকে আরও সহজ করতে পারে। হোয়াটসঅ্যাপের এমন সাতটি গোপন ফিচারের কথাই জানাবো আজ:

১. কোনো মেসেজ পড়লে অর্থাৎ সিন হলে নীল টিক চিহ্ন দেখায়। কিন্তু মেসেজ পড়েছেন, তা বোঝাতে না চাইলে, এই অপশনটি ডিজেবল করতে পারেন। নীল-টিক চিহ্ন ডিজেবল করতে পারেন এভাবে— সেটিংস> অ্যাকাউন্ট> প্রাইভেসি> রিড রিসিপটস। এই ফিচারটির ফলে আপনি কোনো মেসেজ পড়লেও যে পাঠিয়েছে তিনি বুঝতে পারবে না মেসেজটি পড়া হয়েছে।

২. আগে হোয়াটসঅ্যাপে কেউ ইউটিউব ভিডিওর লিঙ্ক পাঠালে, তা ইউটিউবে গিয়ে খুলতো। এখন হোয়াটসঅ্যাপে ব্যবহারের সময়ই ভিডিওটি দেখা যাবে।

৩. হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে এখান অর্থ লেনদেনও করা যায়। ফোনে পিয়ার টু পিয়ার পেমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমে টাকার দেওয়া-নেওয়া সম্ভব হয়েছে। এটি চালু করতে প্রথমে হোয়াটসঅ্যাপে সেটিংসে যান। পেমেন্ট অপশনে গিয়ে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে যুক্ত ফোন নম্বরটি সিলেক্ট করতে হবে। টাকা পাঠাতে হলে, চ্যাটে যেখান থেকে ছবি বা অন্য কোনো ডকুমেন্টস শেয়ার করেন, সেখানে ক্লিক করুন। ওখানেই পেমেন্ট অপশন দেখাবে।

৪. হোয়াটসঅ্যাপে ডিলিট অপশনটি সকলেরই জানা। ভুল করে মেসেজ পাঠিয়ে দিলে তা ৭ সেকেন্ডের মধ্যে ডিলিট করে দিলে তা আর দেখা যেত না। নতুন আপডেটে এই সময় বেড়ে হয়েছে ৬৮ মিনিট।

৫. হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে লাইভ লোকেশনও পাঠানো যায়। কোথাও গিয়ে রাস্তা চিনতে না পারলে বন্ধুকে চ্যাটের মাধ্যমেই লোকেশন শেয়ার করতে পারেন। এটি করতে অ্যাটাচ অপশনে গিয়ে লোকেশন-এ ক্লিক করুন। সেখান থেকে শেয়ার লাইভ লোকেশন-এ ক্লিক করুন। ১৫ মিনিট থেকে ৮ ঘণ্টার জন্য লাইভ লোকেশন শেয়ার করা যায়।

৬. হোয়াটসঅ্যাপের গুরুত্বপূর্ণ মেসেজ হারিয়ে ফেলি আমরা। সেইগুলোকে এবার আমরা স্টার দিয়ে মার্ক করে রাখতে পারি। একটি মেসেজে কিছুক্ষণ ধরে ক্লিক করে রাখলেই স্টার আইকন চলে আসে।

৭. হোয়াটসঅ্যাপ ডেস্কটপেও ব্যবহার করা যায়। হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাপের হোয়াটসঅ্যাপ ওয়েবের মাধ্যমে ডেস্কটপের কানেক্ট করা যায়। এটি করতে হলে ডেস্কটপে হোয়াটটসঅ্যাপ ওয়েব সার্চ করুন। সেখানে একটি কিউআর কোড দেখাবে। সেটি এবার মোবাইলে স্ক্যান করুন। ইন্টারনেট থাকলে এবং ডেস্কটপের কাছেই মোবাইল সেটটি থাকলে হোয়াটসঅ্যাপ চালু হয়ে যাবে ডেস্কটপে।

আপনার মতামত